বিকাল ৪:১৩ | শুক্রবার | ২৯শে মে, ২০২০ ইং | ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

হাতের মেহেদীর রঙ মুছতে না মুছতেই লাশ হতে হলো শান্তকে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আলফাডাঙ্গা: সবে মাত্র কলেজের প্রথম ধাপ পাড় করলো ইনসানা আক্তার শান্ত। কলেজ পড়–য়া শান্ত (১৯)  কাজী সিরাজুল ইসলাম মহিলা কলেজ থেকে ২০১৬ সালে এইচ.এস.সি পাশ করেছে। মেহেদীর রঙ মুছতে না মুছতেই লাশ হতে হলো তাকে। নিষ্ঠুর স্বামীর পরিবারের নির্যাতনের শিকার থেকে রেহাই পেলনা শান্ত। স্বামী জয়নুলের বহু বিবাহের কথা জানতে পেরে ও তার পিতা দাউদ খানের অবৈধ সর্ম্পকের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শেষ পযর্ন্ত লম্পট শশুড়, শাশুড়ি ও তার পরিবারের সদস্যরা পরিকল্পিত ভাবে শান্তকে পৃথিবী থেকে বিদায় করে দিল। মঙ্গলবার সন্ধায় শান্তর লাশ তার শশুড় বাড়ি থেকে উদ্ধার করে আলফাডাঙ্গা থানা পুলিশ। নববধু শান্তর মৃত্যুর খবর শুনে তার পিতার বাড়ি বান্দু গ্রামে নেমে আসে শোকের ছায়া। কলেজের  সহপাটি ও আত্বীয় সজনদের কান্নায় বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। শান্তর পিতা ওয়াদুদ মোল্লা সাংবাদিকদের দেখে কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, আমার মেয়েকে ওরা মেরে ঘরের বারান্দায় সিলিং ফেনের সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাস লাগাইয়া ঝুলাই রেখেছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, আলফাডাঙ্গা উপজেলার বুড়াইচ ইউনিয়নে জয়দেপুর গ্রামের লম্পট দাউদ খানের পুত্র জয়নুল খানের সাথে পারিবারিক ভাবে গত ৩১ জানুয়ারী ১৭ ইং তারিখে বোয়ালমারী উপজেলার ময়না ইউনিয়নে বান্দু গ্রামের ওয়াদুদ মোল্যার মেয়ে শান্তর বিবাহ হয়। বিবাহের পর শান্ত জানতে পারে তার শশুড়ের তিন বিবাহ এবং স্বামী জয়নালের পঞ্চম বিবাহ নববধু সে। চাকুরির সুবাধে বিবাহের ২ দিন পর স্বামী শান্তকে জয়দেবপুর নিজ বাড়িতে রেখে চলে যান ঢাকায় কর্মস্থলে। জয়নুল বাড়িতে এলেও পিতার বাড়িতে মেলানী করা হলো না তার। বিবাহের মাত্র ১৫ দিনের মাথায় স্বামীর বাড়িতে লাশ হতে হয় শান্তকে। অন্য দিকে শান্তর শশুর দাউদ খান বলেন, তার নবগৃহবধু আত্মহত্যা করেছে। খবর পেয়ে আলফাডাঙ্গা থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে জন্য ফরিদপুরে প্ররণ করেছে ।

এ বিষয় শান্তর পিতা মো.ওয়াদুদ মোল্লা বাদী হয়ে মো. দাউদ খান (৫৫), পারভিন বেগম (৪০), জয়নুল খান (৩২), ফয়সাল খান (২৭) ও সিদ্দিকুর রহমান (৪০) এর নামে আলফাডাঙ্গা থানায় হত্যার অভিযোগ দায়ের করেন।

চানতে চাইলে আলফাডাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. নাজমুল করিম বলেন, এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা করা হয়েছে। ময়না তদন্ত রির্পোট আসলে হত্যা মামলা হলে হত্যা মামলা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» আলফাডাঙ্গায় ভাঙনে বাড়ি-ঘর, ফসলি জমি মধুমতিতে

» অনন্য উচ্চতায় শেখ হাসিনা

» সংবাদ প্রকাশের জের মাদককারবারির হামলায় আহত সাংবাদিক মুজাহিদ

» আলফাডাঙ্গায় জুয়া খেলার প্রতিবাদ করায় ইউপি সদস্যকে হত্যার হুমকি

» আলফাডাঙ্গায় উন্নয়ন মেলা শুরু

» তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম ও তথ্য সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদকে বনপা’র অভিনন্দন

» আলফাডাঙ্গায় গরীব-দুস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

» আলফাডাঙ্গায় বিজয় দিবস উদযাপন

» ছাত্রলীগে ঠিকাদার, কাশিয়ানিতে মহাসড়ক অবরোধ

» আলফাডাঙ্গা পৌরসভা ও তিন ইউপি নির্বাচনে প্রার্থিতা বাছাই সম্পন্ন

» “নেশা মুক্ত সমাজ গড়ি এসো সবাই খেলা ধুলা করি” BWFA

» গোপালপুর ইউপি নির্বাচনে আ.লীগ প্রার্থী ইনামুলের মনোনয়ন দাখিল

» “স্মৃতিচারণ”

» গোপালপুর ইউপিতে নৌকার মাঝি হলেন ইনামুল হাসান

» আলফাডাঙ্গা পৌরসভা ও তিন ইউনিয়নে আ.লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত


সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক: সৈকত মাহমুদ
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন
সম্পাদকীয় কার্যালয় : সুইট :৩০০৯, লেভেল : ০৩, হাজি
আসরাফ শপিং কমপ্লেক্স, হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা
01738106357,01715473190,01985082254
fb.com/bartakantho | info@bartakantho.com

Design & Devaloped BY The Creation IT BD Limited | সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © বার্তাকণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র ও অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি।

বিকাল ৪:১৩, ,

হাতের মেহেদীর রঙ মুছতে না মুছতেই লাশ হতে হলো শান্তকে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আলফাডাঙ্গা: সবে মাত্র কলেজের প্রথম ধাপ পাড় করলো ইনসানা আক্তার শান্ত। কলেজ পড়–য়া শান্ত (১৯)  কাজী সিরাজুল ইসলাম মহিলা কলেজ থেকে ২০১৬ সালে এইচ.এস.সি পাশ করেছে। মেহেদীর রঙ মুছতে না মুছতেই লাশ হতে হলো তাকে। নিষ্ঠুর স্বামীর পরিবারের নির্যাতনের শিকার থেকে রেহাই পেলনা শান্ত। স্বামী জয়নুলের বহু বিবাহের কথা জানতে পেরে ও তার পিতা দাউদ খানের অবৈধ সর্ম্পকের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শেষ পযর্ন্ত লম্পট শশুড়, শাশুড়ি ও তার পরিবারের সদস্যরা পরিকল্পিত ভাবে শান্তকে পৃথিবী থেকে বিদায় করে দিল। মঙ্গলবার সন্ধায় শান্তর লাশ তার শশুড় বাড়ি থেকে উদ্ধার করে আলফাডাঙ্গা থানা পুলিশ। নববধু শান্তর মৃত্যুর খবর শুনে তার পিতার বাড়ি বান্দু গ্রামে নেমে আসে শোকের ছায়া। কলেজের  সহপাটি ও আত্বীয় সজনদের কান্নায় বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। শান্তর পিতা ওয়াদুদ মোল্লা সাংবাদিকদের দেখে কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, আমার মেয়েকে ওরা মেরে ঘরের বারান্দায় সিলিং ফেনের সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাস লাগাইয়া ঝুলাই রেখেছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, আলফাডাঙ্গা উপজেলার বুড়াইচ ইউনিয়নে জয়দেপুর গ্রামের লম্পট দাউদ খানের পুত্র জয়নুল খানের সাথে পারিবারিক ভাবে গত ৩১ জানুয়ারী ১৭ ইং তারিখে বোয়ালমারী উপজেলার ময়না ইউনিয়নে বান্দু গ্রামের ওয়াদুদ মোল্যার মেয়ে শান্তর বিবাহ হয়। বিবাহের পর শান্ত জানতে পারে তার শশুড়ের তিন বিবাহ এবং স্বামী জয়নালের পঞ্চম বিবাহ নববধু সে। চাকুরির সুবাধে বিবাহের ২ দিন পর স্বামী শান্তকে জয়দেবপুর নিজ বাড়িতে রেখে চলে যান ঢাকায় কর্মস্থলে। জয়নুল বাড়িতে এলেও পিতার বাড়িতে মেলানী করা হলো না তার। বিবাহের মাত্র ১৫ দিনের মাথায় স্বামীর বাড়িতে লাশ হতে হয় শান্তকে। অন্য দিকে শান্তর শশুর দাউদ খান বলেন, তার নবগৃহবধু আত্মহত্যা করেছে। খবর পেয়ে আলফাডাঙ্গা থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে জন্য ফরিদপুরে প্ররণ করেছে ।

এ বিষয় শান্তর পিতা মো.ওয়াদুদ মোল্লা বাদী হয়ে মো. দাউদ খান (৫৫), পারভিন বেগম (৪০), জয়নুল খান (৩২), ফয়সাল খান (২৭) ও সিদ্দিকুর রহমান (৪০) এর নামে আলফাডাঙ্গা থানায় হত্যার অভিযোগ দায়ের করেন।

চানতে চাইলে আলফাডাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. নাজমুল করিম বলেন, এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা করা হয়েছে। ময়না তদন্ত রির্পোট আসলে হত্যা মামলা হলে হত্যা মামলা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ




সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক: সৈকত মাহমুদ
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন
সম্পাদকীয় কার্যালয় : সুইট :৩০০৯, লেভেল : ০৩, হাজি
আসরাফ শপিং কমপ্লেক্স, হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা
01738106357,01715473190,01985082254
fb.com/bartakantho | info@bartakantho.com

Design & Devaloped BY The Creation IT BD Limited | সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © বার্তাকণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র ও অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি।